তারুণ্য ধরে রাখুন এভোকাডোর সাহায্যে

avocado-skin-care

“এভোকাডো” শব্দটির সাথে আজকাল আমরা সকলেই কম বেশি পরিচিত। ল্যাটিন আমেরিকায় উৎপন্ন সবুজ বর্ণের এই সুস্বাদু ফলটি সালাদ, স্যান্ডউইচ বা স্মুদি হিসেবে এখন সারা পৃথিবীতেই বেশ জনপ্রিয়। শরীরে পুষ্টি যোগাতে এর বিশেষ উপকারীতা রয়েছে তবে এর সাথে সাথে ত্বকের যত্নেও এর তুলনা নেই। বিশেষ করে বয়সের ছাপ বা রিংকেল ও ফাইন লাইন দূর করতে এবং ত্বকের ড্রাইনেস ও ফ্লেকীভাব দূর করতে এভোকাডো বেশ কার্যকর।

১। ত্বকের ময়েশ্চারাইজ ধরে রাখতে
এভোকাডোতে আছে হেলদী ফ্যাট যা ত্বককে ভিতর থেকে ময়েশ্চারাইজ করে এবং এর ভিটামিন এবং মিনারেলস ত্বকের পুষ্টি যোগায়। এতে বিদ্যমান ফ্যাটি এসিড, ভিটামিনস এবং এন্টি অক্সিডেন্টস ত্বকের ড্যামেজ রিপেয়ার করতে সাহায্য করে। তাই ড্রাই স্কিনে এভোকাডো সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে ত্বক থাকবে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত ময়েশ্চারাইজড।

এভোকাডো সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার পেতে ভিজিট করুনঃ

Premium Avocado Rich Cream

২। সানট্যান বা সান ড্যামেজ থেকে সুরক্ষা পেতে
এভোকাডোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ই যা স্কিনকে নওরিশ করার পাশাপাশি ত্বককে সান ড্যামেজ থেকে রক্ষা করে। এভোকাডো সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার বা লিপবাম ব্যবহারে ত্বক ও ঠোঁট থাকবে সান ড্যামেজ থেকে সুরক্ষিত এবং এর ভিটামিন ই ত্বকের ডেড সেলস রিপেয়ার করতে সাহায্য করবে।

এভোকাডো সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার ও লিপবাম পেতে ভিজিট করুনঃ

Premium Avocado Rich Cream

Avocado Stick Lip Balm

 

৩। বলিরেখা দূর করতে
এভোকাডোতে রয়েছে লেসিথিন যা কোলাজেন বুস্ট করে। কোলাজেন বুস্ট হলে স্কিনের টাইটনেস বাড়ে যার ফলে অসময়ে ত্বকের চামড়া ঝুলে যাওয়া বা বলিরেখা দূর হয়। এতে থাকা ভিটামিন ই, লেসিথিন, ক্যারোটিনয়েডস এবং ফ্যাটি এসিডস স্কিনের এইজিং প্রোসেসকে ধীরগতির করতে সহায়তা করে। তাই ইতিমধ্যে যাদের বয়সের ছাপ দেখা দিচ্ছে বা রিংকেল পড়া শুরু হয়ে গেছে তারা ব্যবহার করতে পারেন এভোকাডো সমৃদ্ধ একটি টোনার এবং সিরাম যা বিশেষ ভাবে আপনার তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করবে।

এভোকাডো সমৃদ্ধ টোনার ও সিরাম পেতে ভিজিট করুনঃ

Premium Avocado Rich Essence

 

Premium Avocado Rich Toner

৪। ঠোঁটের গোলাপী ভাব ফিরিয়ে আনতে
শুষ্ক, কালচে ঠোঁট আমাদের সৌন্দর্য অনেকটাই কমিয়ে আনে। তাই ত্বকের পরে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন ঠোঁটের যত্ন নেয়া। এভোকাডো সমৃদ্ধ লিপবাম ব্যবহারে ঠোঁটের শুষ্কভাব যাওয়ার পাশাপাশি ঠোঁট হয় সফট এবং গোলাপী। ঠোঁটের নিয়মিত যত্নে একটি লিপবামের পাশাপাশি প্রয়োজন লিপ স্ক্রাবিং এর। সপ্তাহে কমপক্ষে ২/৩ দিন লিপ স্ক্রাবিং করা হলে ঠোটের ডেড সেলস রিমুভ হওয়ার পাশাপাশি ঠোটের গোলাপী আভা ফিরে আসে এবং ঠোঁটের চারপাশের পিগমেন্টেশন দূর হয়।

এভোকাডো সমৃদ্ধ লিপবাম ও লিপস্ক্রাব পেতে ভিজিট করুনঃ

Avocado & Olive Lip Balm

Avocado & Sugar Lip Scrub

0 I like it
0 I don't like it

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *