তৈলাক্ত ত্বকের (Oily Skin) জন্য কোরিয়ান স্কিনকেয়ার রুটিন

oily-skin-1

গরমের সময়ে তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে বিভিন্ন ঝামেলা পোহাতেই  হয়,আর তাই এ সময়ে ত্বকে নিতে হয় বাড়তি যত্ন। গরমকালে ত্বক প্রচুর ঘামে এবং কালো হয়ে যায় ,তাই নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার রাখা জরুরি এবং সম্ভব হলে সবসময় ডাবল ক্লিঞ্জিং ব্যাবহার করে ত্বককে ডিপলি ক্লিন করতে হবে ।ত্বকে ঠিকমত যত্ন না নিলে অতিরিক্ত তেল, ময়লা এবং মৃত কোষ মিলে ব্রণ, রেশ,বাম্পস এর সৃষ্টি হয়।

যারা বেশি ঘামে, তাদের ভোগান্তি আরও বেশি। ঘামের কারণে সবারই  কমবেশি অস্বস্তি হয়। আবার গরমে তৈলাক্ত ত্বকে বাইরের ধুলা-ময়লা আটকে গিয়েও বিভিন্ন রকম সমস্যা হতে পারে।তাই গরমে ত্বক ভাল করে পরিষ্কার করতে হবে যেন ধুলো ময়লা না জমে থাকে।

ত্বক পরিষ্কার রাখতেঃ

নিয়মিত মুখের ত্বক পরিষ্কার করতে মুখ ধোয়ার পর দু-এক ফোঁটা গোলাপজল মুখে টোনার বা মিস্ট হিসেবে স্প্রে করে নিতে পারেন। এ ছাড়াও পানিতে নিমপাতা ডুবিয়ে রেখে সেই পানিতে গোসল করলে জীবাণুর সংক্রমণ থেকে বাঁচবেন এবং খোস পাঁচড়া থেকে রেহাই পাবেন। আপনি চাইলে নিমযুক্ত সাবানও ব্যবহার করতে পারেন। পাউডার ব্যবহার করলেও তা দিন শেষে পরিষ্কার করে ফেলতে হবে।

ত্বকের ঘরোয়া যত্ন

ত্বকের যত্নে প্রথমেই আসে ডাবল ক্লিঞ্জিং তাই যে কোন ক্লিঞ্জিং ওইল দিয়ে মুখটাকে ক্লিন করে নিতে হবে সেক্ষেত্রে (Innisfree,Purito,The Face shop)ব্যান্ড গুলু খুব  পপুলার এবং স্কিনকে অনেক তাড়াতাড়ি ডিপলি ক্লিন করে। এক্ষেত্রে আপনি কটন প্যাড অথবা ফেসিয়াল wipes দিয়ে স্কিন ক্লিন করতে পারেন।

যত কিছুই ব্যাবহার করি না কেন একটা ফেইস ওয়াস ব্যাবহার না করলে যেন কোন ভাবেই স্কিনটা ফ্রেস মনে হয় না।তাই এজন্য আপনি পছন্দ মত ফেইস ওয়াস ব্যাবহার করতে পারেন কিন্তু তৈলাক্ত ত্বকের জন্য (Innisfree jeju volcanic) অথবা low PH এর কোন ফেইস ওয়াস যেমন ( Skinfood Rice,CosRX low PH good morning Gel) ব্যাবহার করতে পারেন।

 

তৈলাক্ত ত্বকে যেহেতু একনি/ব্রন হবার প্রবনতা অনেক থাকে তাই সেক্ষেত্রে (Purito,Innisfree Bija,Neela)এই ধরনের ফেইস ওয়াস ব্যাবহার করা যেতে পারে।

PURITO Defence Barrier Ph Cleanser

ত্বক ক্লিন করে যে কোন একটি ফেইস প্যাক লাগালে ত্বকের বিভিন্ন রকম সমস্যা থকে মুক্তি পাওয়া যায় ।তাই মুলতানি মাটি, চন্দনের গুঁড়া,  টকদই একত্রে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ফেলুন। এর পর মুখে লাগিয়ে রাখতে পারেন ১০-১৫ মিনিট। এতে ত্বকের বাড়তি তেল ও ময়লা পরিষ্কার হবে। তাছাড়াও আপনি যে কোন ধরনের ওয়াস অফ মাস্ক যেমন Skinfood Rice,Honey,Stwawberry,Black Sugar ওয়াস অফ মাস্ক  ব্যাবহার করতে পারেন। এতে আপনার স্কিন ডিপলি ক্লিন হবে।

ফাঙ্গাল একনি যদি থাকে সেক্ষেত্রে আপনাকে যেকোন ধরনের (matcha mask,Clay mask,Charcol mask)অবশ্যই স্কিন কেয়ার এ রাখতে হবে। এতে ব্রন হবার প্রবণতা কমে যাবে এবং ব্যাকটেরিয়া মরে যাবার সাথে সাথে আপনার স্কিন ব্রনমুক্ত হয়ে যাবে। যে কোন ধরনের ক্লে মাস্ক ব্যাবহার করার আগে হালকা কুসুম গরম পানিতে মুখটা মুছে নিলে পোরস গুলু ওপেন হয়ে যায় তাই এটা স্কিনের একদম ভিতর থেকে কাজ করে। ক্লে মাস্ক ব্যাবহার করে আপনাকে মিনিমাম ১৫ মিনিট রাখতে হবে এবং ১৫ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এক্ষেত্রে যদি একটিভ একনি অনেক বেশি পরিমাণে হয়ে থাকে তাহলে (cosrx Acne Pimple Master patch) সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন ব্যাবহার করতে হবে। এতে একটিভ একনির সংখ্যা কমে যাবে এবং অনেক সময় এগুলুর কারণে ব্যাথা অনুভূত হয় সেটা একদম সেরে যাবে।

উপরের পদ্ধতিগুলু ঠিকভাবে পালন করতে পারলে স্কিনের একনি, তৈলাক্ত ত্বক থেকে স্বাভাবিক ত্বক ফিরে পাওয়া যাবে অনেক অল্প দিনে।

3 I like it
2 I don't like it

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *