সুস্বাস্থ্য ও ত্বকের যত্নে সুপার ফুড

সুস্বাস্থ্য ও ত্বকের যত্নে সুপার ফুড
ত্বকের ব্যাপারে নানান জনের নানান মতামত থাকলেও একটা বিষয়ে সবার একমত। আর তা হচ্ছে – আপনি যা খাবেন তার প্রভাব সরাসরি আপনার চেহারায় পড়তে পারে। যদি আপনি প্রতিনিয়ত প্রক্রিয়াজাত, উচ্চমাত্রার সুগার বা ফ্যাটযুক্ত, আঁশ বিহীন খাবার গোগ্রাসে গিলতে থাকেন; তাহলে অচিরেই আপনার ত্বক উজ্জ্বলতা হারিয়ে নিষ্প্রভ হবে। পাশাপাশি উটকো ঝামেলা হিসেবে ব্রণ, শুষ্কতা, তেল চিটচিটে ভাবে এবং চোখের নীচে গাঢ় দাগ দেখা দিতে পারে।
তাহলে পরিত্রাণের উপায় কি? উপায় একটাই। আর তা হচ্ছে – সুপারফুডস। সুস্বাস্থ্যের পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য উচ্চমানের চর্বিহীন প্রোটিন, আঁশ, স্বাস্থ্যকর তেল, কাঁচা ফল এবং শাকসবজির কোন তুলনা হয় না। এই খাবারগুলোতে উচ্চমানের অ্যামিনো এসিড রয়েছে, যা মজবুত ত্বকের ভিত বুনার জন্য সহায়তা করে। পাশাপাশি অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সম্পন্ন উপাদানগুলো পরিবেশগত চাপের বিরুদ্ধে সুরক্ষা নিশ্চিত করে। তাই, আজকের আয়োজনে থাকছে সুস্বাস্থ্য ও ত্বকের যত্নে সুপার ফুড নিয়ে বিস্তারিত আলাপ আলোচনা।
সব ধরনের ত্বকের জন্য সুপারফুড 
আদা – আদা সর্বাধিক পরিচিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসের জন্য। আদা ত্বকে সুদৃশ্য প্রভাব ফেলতে সক্ষম।
টমেটো – সালাদের জন্য বিখ্যাত টমেটো হচ্ছে লাইকোপিনের সেরা উৎস। যা একটি অ্যান্টি-এজিং অক্সিডেন্ট; পাশাপাশি হৃদরোগ প্রতিরোধেও সহায়তা করে। লাইকোপিন রান্না হয়ে গেলে পরে ত্বকে দ্রুত শোষিত হয়। তাই, স্ট্যু এবং স্যুপ করে খাওয়া যেতেই পারে।
চিয়া সিড – চিয়া সিড হচ্ছে মরুভূমিতে জন্মানো সালভিয়া হিসপানিকা উদ্ভিদের বীজ। ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিডের সর্বাধিক উৎকৃষ্ট উৎস এটি। এই এসিড ত্বকের ভিত্তি দৃঢ় ও মজবুত করার পাশাপাশি বলি রেখা দূরীকরণ, ত্বকের কোষের স্বাভাবিক কার্যকারিতা এবং নতুন করে কোলাজেন উৎপাদনে সাহায্য করে।
ব্রণ বিশিষ্ট ত্বকের জন্য সুপারফুড 
আর্টিচোক – আর্টিচোকে ফ্লেভানয়েড সিলিমারিন রয়েছে; এটি এমন একটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা লিভারকে সুরক্ষার পাশাপাশি দাগযুক্ত ত্বক পরিষ্কারে সহায়তা করে। বেশিরভাগ সময়ই এটা লতাপাতা, বিশেষ করে পালং শাক, যা ব্রণের বিরুদ্ধে উপকারী আরেকটি খাদ্য উপাদান, জাতীয় খাবারের সঙ্গে মিশিয়ে রান্না করা হয়ে থাকে।
মিশো – দই খাবার কথা অনেকেই বলে কারণ এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোবায়োটিক। আর প্রোবায়োটিক ত্বক, পাচনতন্ত্র এবং স্ফীত ভাব নিয়ন্ত্রণে দারুণ কার্যকরী। তবে আপনি যদি শর্করা জাতীয় খাবারে অস্বস্তি থাকে তাহলে আদতে কোন লাভই নেই। পরিবর্তে আপনি মিশো খেতে পারেন, যাতে দইয়ের সকল পুষ্টিগুণই রয়েছে। যেহেতু জাপানিজ তৈরি এটা, তাই আর বলার অপেক্ষা রাখে না এটা কতটা কার্যকরী।
ওটমিল –  এই খাবারটি গ্লাইসেমিক তালিকার নীচের দিকে রয়েছে। এটি এমন এক তালিকা যা শর্করাযুক্ত খাবারগুলোকে রেটিং করে প্রতিটি খাদ্য রক্তে চিনির পরিমাণ কত বাড়ায় তার উপর ভিত্তি করে। ওটমিলে প্রচুর ক্যালোরি থাকে যা আপনাকে ক্ষুধাবোধও থেকে রক্ষা করে দীর্ঘ সময়।
তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সুপারফুড 
মিষ্টি আলু – ভিটামিন এ এর দারুণ উৎস হচ্ছে মিষ্টি আলু। ভিটামিন এ ডিরাইটিভগুলো ত্বকে তেলের উৎপাদন হ্রাস করে এবং ব্রণের চিকিৎসায় কাজ করে। মিষ্টি আলুতে বেটা ক্যারোটিন থাকে যা ত্বককে স্বাস্থ্যকর রাখে এবং প্রাকৃতিক সানব্লক হিসেবে কাজ করে।
দারুচিনি – সুগন্ধীর পাশাপাশি দারুচিনি ত্বকের জন্য দারুণ উপকারী একটি খাদ্য উপাদান। দেহের রক্ত সঞ্চালন ও রক্ত প্রবাহকে ঠিক রাখা, এবং ত্বকে অক্সিজেন এবং পুষ্টি সরবরাহ করা দারুচিনি কাজ। এমনকি রক্তের সুগারের মাত্রা ঠিক রাখতেও দারুণ কার্যকর এই খাদ্য উপাদান।
শুষ্ক ত্বকের জন্য সুপারফুড 
অ্যাভোকাডো – স্বাস্থ্যকর তেল এবং ভিটামিন ই প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায় অ্যাভোকাডোতে। যা ত্বকের কোষের ক্রিয়াকলাপ বৃদ্ধি করে। এমনকি হাইড্রেশন এবং ব্যারিয়ার গঠনেও সাহায্য করে অ্যাভোকাডো।
সার্ডিন – সার্ডিন মাছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি১২ এবং সেলেনিয়াম থাকে। কোষের প্রজননে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে ভিটামিন বি১২। আপনার দেহ যদি এই ভিটামিনের অভাবে থাকে তাহলে ত্বক শুষ্ক এবং বেমানান লাগবে দেখতে। আর সেলেনিয়াম দেহে গ্লুটাথায়ন নামক একটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট তৈরি করে; যা ত্বকের স্কিন ব্যারিয়ারের সুরক্ষাতে কাজ করে। এছাড়াও, সার্ডিনে ফসফরাস, প্রোটিন, ভিটামিন ডি এবং ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড থাকে। যার প্রত্যেকটাই ত্বকের জন্য অত্যন্ত দরকারী।
রিঙ্কেলস এবং বলিরেখা যুক্ত ত্বকের জন্য সুপারফুড 
স্যামন – স্যামন মাছে অসংখ্য স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী উপাদান থাকে। রক্তচাপ এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড রয়েছে; যা কোলাজেন তৈরিতে সাহায্য করে। এটি এমন একটি প্রোটিন যা ত্বকের ভিত্তি মজবুত রাখতে এবং ত্বককে বলিমুক্ত রাখতে দারুণ কার্যকরী।
ডিমের সাদা অংশ – ডিমের সাদা অংশে প্রচুর পরিমাণে লাইসিন এবং প্রোলিন (অ্যামিনো এসিড) থাকে, পাশাপাশি কোলাজেনও থাকে। আর যত বেশি কোলাজেন তৈরি হবে ত্বকের সূক্ষ্ম ও বলিরেখা ততটাই প্রতিরোধ হবে। নিরামিষাশীরা চিনাবাদাম খেতে পারেন। ওটাতে প্রচুর পরিমাণে লাইসিন থাকে।
কুইনোয়া – এই বীজে প্রচুর পরিমাণে রাইবোফ্লাবিন থাকে; যা ত্বকের জন্য দুর্দান্ত। রাইবোফ্লাবিন ত্বকের নমনীয়তা এবং সংযোজন টিস্যু বিনির্মানে কাজ করে। যার ফলে ত্বকের সূক্ষ্ম ও বলিরেখা নির্মূল হয়।
চোখের নীচে কালো দাগ বিশিষ্ট ত্বকের জন্য সুপারফুড 
পালং শাক – পালং শাকের মতো সবুজ শাকসবজি, ব্রুকলি, ব্রাসেলস স্প্রাউট, পাতাকপি এবং গ্রীন কোলার্ডের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন কে থাকে; যা রক্ত সঞ্চালন এবং ঘনীভূত করতে পাওয়ারহাউজ হিসেবে পুষ্টি সরবরাহ করে থাকে। পালং শাকে আরো থাকে জিঙ্ক, যা ব্রণের ব্রেকআউট রোধ করে এবং ইনফ্লেমেশন কমায় ত্বকে। এছাড়াও এতে জিয়াক্যানথিন থাকে। প্রাকৃতিকভাবে তৈরি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা ত্বককে সুরক্ষা দেয় এবং ত্বকের টোন ঠিক রাখতে সাহায্য করে।
গাঢ় দাগ বিশিষ্ট ত্বকের জন্য সুপারফুড 
সাইট্রাস ফল – সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির সংস্পর্শে এসে অতিরিক্ত পিগমেন্টেশনের কারণে গাঢ় দাগ সৃষ্টি হয় ত্বকে। সাইট্রাস ফলে থাকা ভিটামিন সি এর মতো টপিক্যাল অ্যান্টি-অক্সিডেন্টগুলো প্রদাহকে শান্ত করে, এবং গাঢ় দাগ মলিন করে উজ্জ্বলতা বাড়ায়।
বেল মরিচ – উচ্চমাত্রায় ভিটামিন সি পাওয়া যায়, এমন আরেকটি দারুণ খাদ্য উপাদান। এটি ত্বককে মসৃণ করতে এবং পিগমেন্টেশনের অত্যধিক উৎপাদনের কারণে সৃষ্ট গাঢ় দাগ নির্মূল করতে সাহায্য করে। তবে বেল মরিচ খেতে না চাইলে ব্রুকলি, বাঁধাকপি এবং বেরি ফল খাওয়া যেতে পারে।
নিস্তেজ বর্ণ বিশিষ্ট ত্বকের জন্য সুপারফুড 
পাপরিকা/লঙ্কা – অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি, ই এবং জিয়াক্যানথেনের মতো উপকারী ক্যারোটিনয়েড থাকে পাপরিকাতে। মিষ্টি আলুর উপর অলিভ অয়েল ছিটিয়ে তার সঙ্গে পাপরিকা লেপ্টে দিয়ে কিংবা মুরগির মাংসে রসুনের গুঁড়ো এবং গোলমরিচ দিয়ে পাপরিকা মিশিয়ে খাওয়ার তুলনা হয় না।
হলুদ – হলুদে কারকিউমিন থাকে যা ত্বক নিস্তেজ করে তুলে এমন ফ্রি র‍্যাডিকালের বিরুদ্ধে লড়াই করে। কোলাজেনের সংশ্লেষণকে সাহায্য করা, ত্বকের নমনীয়তা ঠিক রাখা এবং সূক্ষ্ম ও বলিরেখার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ করার শক্তি দেয় ত্বককে।
লিংক: 
📞 ত্বকের সমস্যার জন্য প্রোডাক্ট সাজেশন পেতে কল করুনঃ 01790 270066 অথবা ইনবক্স করুন। 
🌐 ১০০% অরিজিনাল কোরিয়ান প্রোডাক্টঃ https://chardike.com
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূhttps://chardike.com/product-tag/pores-minimize/র্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © chardike blog 2021
0 I like it
0 I don't like it

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *