পেপটাইডস কী? কিছু পেপটাইড সম্পন্ন প্রডাক্ট এর সাজেশন

পেপটাইডস

পেপটাইডস হলো অ্যামিনো এসিডের ছোটোখাটো চেইন যা মানুষের শরীরে বেশ গুরুত্ব পূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আবার এগুলো শরীরের বিভিন্ন কাজকর্মে সাহায্য করে যেমন বডি সেল গুলোর মধ্যে ভালো বন্ডি তৈরী করে, মেটাবলিজম ও ইমিউনিটি বাড়ায়।

তো পেপটাইডস শরীরে বিভিন্ন রকম কাজ করে।

এরা মেটাবলিজম ক্ষমতা বাড়ায়। মেটাবলিজম হলো এক ধরনের প্রসেস যার মাধ্যমে বডি খাবারগুলোকে এনার্জি তে রুপান্তর করতে হেল্প করে।

আবার পেপটাইডস ইমিউনিটি পাওয়ার বাড়িয়ে বডিকে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া ও ইনফেকশন হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে।

অন্যদিকে, বডির সেলগুলোর মধ্যে স্ট্রং কানেকশন তৈরী করে।

ফলে স্কিন টেক্সচার, ফার্মনেস ও ইলাস্টিসিটি বজায় রাখতে পেপটাইডস বেশ ভালো কাজ করে।

বডিতে প্রোটিন আর পেপটাইডস একসাথে কাজ করে। প্রোটিন যেখানে অনেক লম্বা অ্যামিনো এসিড এর চেইন, সেখানে পেপটাইডস অনেক ছোটো অ্যামিনো এসিড এর চেইন। আর এই দুটো মিক্স অ্যান্ড ম্যাচ করে বডি যা তৈরী করে সেটাকে বলা হয় synthesization of peptides.

পেপটাইডস স্কিনকেয়ার জগতে অনেকটাই নতুন ইনগ্রেডিয়েন্ট হিসেবে অ্যাড হয়েছে। গবেষনায় দেখা গেছে যে, পেপটাইডস ক্যান্সার সেল গুলোকে ধ্বংস করতে হেল্প করে, ইনফেকশন, হার্টের সমস্যা ইমপ্রুভ করতে হেল্প করে। আবার ইমিউন সিস্টেম ভালো রাখে ফলে বেশ কিছু অসুখ বডিতে বাসা বাঁধতে পারেনা।

অন্যদিকে পেপটাইডস স্কিনে কোলাজেন প্রোডাকশন বাড়ায় ফলে এটি অ্যান্টি এজিং ইনগ্রেডিয়েন্ট হিসেবে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

আবার, পেপটাইডস স্কিনের রিংকেলস কমাতে হেল্প করে, সান ড্যামেজ এর ফলে যে পিগমেন্টেশন হয় তা রিপেয়ার করতে কাজ করে।

এছাড়াও পেপটাইডস স্কিনের ইনফ্ল্যামেশন কমায় ও স্কিন হিলিং এর কাজ করে থাকে।

চার ধরনের পেপটাইডস আছে

১. Regulatory peptides

এই ধরনের পেপটাইড স্কিনের সেল থেকে নিঃসরণ হয় বাকি স্কিন সেলস এর কার্যকারিতা বাড়াতে হেল্প করে।

২. Neuropeptides

মানুষের মেজাজ, ক্ষুধা, স্ট্রেস ও হজম এর রেগুলেটর হিসেবে কাজ করে থাকে। নার্ভ সিগন্যাল ট্রান্সমিশনে কাজ করে থাকে।

৩. Hormone peptides

এই পেপটাইড হরমোন প্রোডাকশন কমাতে বা বাড়াতে পারে। আবার হরমোন কে এক্সাইটেড করে বা হরমোন কে প্রডিউস করতে বাধা দিয়ে থাকে।

৪. Enzymatic peptides

একটু আগে যে মেটাবলিজম ও সেল গুলোর মধ্যে বন্ডিং এর বিষয়টি বলা হয়েছিলো সেটাই এই পেপটাইডের কাজ। এই এনজাইমের সাহায্যেই সেল গুলো কর্মক্ষম থাকে আর মেটাবলিজম ক্ষমতা বাড়ে।

বয়সের সাথে প্রোডাকশন কমতে থাকে। তাই বিভিন্ন ভাবে পেপটাইডস শরীরে নেয়া যায়। অনেকে ইনজেকশনের মাধ্যমে পেপটাইড থেরাপি নেন, আবার বিভিন্ন পেপটাইড ট্যাবলেট ও নেয়া যায়। অন্যদিকে টপিক্যাল পেপটাইড স্কিনে অ্যাপ্লাই করতে ও অনেকেই সাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

চারদিকে.কম তাই নিয়ে এসেছে বিভিন্ন পেপটাইড সমৃদ্ধ সিরাম, ময়শ্চারাইজার ও আইক্রিম।

Click Here To Buy Now!

Available Products At Chardike.com Which Have Peptides

যদিও প্রোডাক্ট স্কিনের হেলথ এর জন্য অনেক উপকারি, মনে রাখা ভালো যে যদি প্রথমবার পেপটাইড যুক্ত প্রোডাক্ট ইউজ করা হয় তাহলে একদম লো পার্সেন্টেজ থেকে শুরু করা ভালো ও ব্যবহারের আগে প্যাচ টেস্ট করে নেয়া উচিৎ। তারপর ধীরে ধীরে সেটার পরিমান বাড়ানো যেতে পারে। আর সবশষে যেটা জানা জরুরী তা হলো প্রেগন্যান্ট বা যারা নতুন মা হয়েছেন তাদের পেপটাইড যুক্ত প্রোডাক্ট ইউজ করা উচিৎ নয়।

Reference:

  • https://www.dermstore.com/blog/top_ten/what-peptides-do-for-skin/
  • https://www.byrdie.com/polypeptides-in-skincare
  • https://www.paulaschoice-eu.com/what-are-peptides-and-what-do-they-do-for-your-skin
0 I like it
0 I don't like it

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *